ভাবনা উদ্রেককারী প্রবন্ধের সমাবেশে সমৃদ্ধ ‘উদার আকাশ’

ভাবনা উদ্রেককারী প্রবন্ধের সমাবেশে সমৃদ্ধ ‘উদার আকাশ’

তাসনিম নূর

‘বাংলা’ ও ‘বাঙালি’ বললেই কিছু বহুপ্রচলিত জরাজীর্ণ ধারণা আমাদের মাথার মধ্যে আসে৷ সেখানে মুসলিম সম্প্রদায়ের মানুষজন অতি কষ্টে জায়গা পান৷ জাতীয় ও সামাজিক জীবনে তাঁদের কোনও অবদান আছে কি না, এ বিষয়ে আলোচনা হয় না বললেই চলে৷ সাহিত্য জগতে কাজী নজরুলের শ্যামাসংগীত লেখার কথা উল্লেখ করে ধর্মনিরপেক্ষতার উপপাদ্য রচিত হয়৷ রাজনৈতিক উদাহরণের ক্ষেত্রে মৌলানা আজাদের নাম আসে ‘প্রমুখ’ লেখার আগে৷ ধর্ম, মুসলমানত্ব ইত্যাদি বিষয় নিয়ে চর্চা করলে কেউ পুরোপুরি বাঙালি হয়ে উঠতে পেরেছেন কি না, তা নিয়ে ঘোরতর প্রশ্ন তুলে দেওয়া হয়৷ এটা অনেকক্ষেত্রে জেনে-বুঝে বিদ্বেষি মানসিকতা নিয়েই হয়৷ এর নিরসন ঘটাতে সচেষ্ট হয়েছে ফারুক আহমেদ সম্পাদিত ‘উদার আকাশ’ পত্রিকা৷ বিজ্ঞজনদের আলোচনায় উল্লেখ করার মতো মেধাবী, খ্যাতিসম্পন্ন ব্যক্তিত্ব মুসলিম সমাজেও জন্মেছে, তার প্রমাণ পাওয়া যায় পত্রিকায় স্থান পাওয়া প্রবন্ধগুলিতে৷ স্যার সৈয়দ আমির আলি, হুমায়ুন কবীর, সৈয়দ বদরুদ্দোজা প্রমুখকে নিয়ে প্রথাভাঙ্গা আলোচনার সঙ্গে সঙ্গে গবেষক-প্রাবন্ধিক জাহিরুল হাসানের মননশীল সাক্ষাৎকার, সুবোধ সরকার, সৌমিত প্রমুখের কবিতা বৈচিত্রের মধ্যে ঐক্য প্রতিষ্ঠা করেছে৷ ঈদ-শারদ উপলক্ষে এ বাংলায় যেসব পত্রিকা বিশেষ সংখ্যা প্রকাশ করেছে, তার মধ্যে উদার আকাশ প্রবন্ধ-নিবন্ধের ব্যক্তিক্রমী সমাবেশের জন্যই পাঠকপ্রিয়তা লাভ করতে পারবে৷

বিশিষ্ট ইতিহাস বিশেষজ্ঞ, প্রাবন্ধিক খাজিম আহমেদ এই সংখ্যায় চারটি প্রবন্ধ লিখেছেন৷ দুই মলাটের ভেতর তাঁর মতো বিদগ্ধ লেখকের চার-চারটি প্রবন্ধ পাঠককে সমৃদ্ধ করবে নিঃসন্দেহে৷ তিনজন গুরুত্বপূর্ণ মুসলিম ব্যক্তিকে নিয়ে গবেষণামূলক এই লেখাগুলি ঈদ-শারদ সংস্করণের অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ প্রবন্ধ৷ তাঁদের জীবন ও কর্ম যেভাবে তিনি স্বল্প পরিসরে বিশ্লেষণ করেছেন, তা যে বহু অভিজ্ঞতা ও বৈদগ্ধের ফসল, সেটা সহজেই অনুমেয়৷ হুমায়ুন কবীরের মেধা, আমির আলির প্রজ্ঞা, বদরুদ্দোজার বাগ্মীতার স্বরূপকে তিনি লিপিবদ্ধ করেছেন৷ এই ‘ভুলে যাওয়ার আকালে’ তাঁদেরকে নিয়ে চর্চা অত্যন্ত জরুরি হয়ে পড়েছে৷ ‘মুসলিম বাংলার চিন্তানায়ক’ প্রবন্ধে খাজিম আহমেদ যথার্থই লিখেছেন, আমির আলি ভারতীয় মুসলিমদের আশা-আকাঙ্ক্ষার কথা আন্তর্জাতিক বিশ্বে তুলে ধরেন৷ জীবনের শেষ ২৪ বছর ইংল্যান্ডে বাস করায় ‘বাংলার চিন্তানায়ক’ প্রকৃত অর্থে আন্তর্জাতিক মানুষ হয়ে উঠেছিলেন৷ ‘মর্যাদার অন্বেষক হুমায়ুন কবির’ ও ‘সৈয়দ বদরুদ্দোজাঃ এক বিস্মৃয়মান যোদ্ধা’ নিবন্ধে স্ব-স্ব ক্ষেত্রে তাঁদের কীর্তির কথা উঠে এসেছে৷ দেশভাগ পরবর্তী সময়ে মুর্শিদবাদের রাজনীতিতে মুসলিমদের ভূমিকা নিয়ে তথ্যসমৃদ্ধ লেখা লিখেছেন খাজিম আহমেদ৷ বুদ্ধিজীবী হিসেবে এখন যাঁর কথা খুবই কম আলোচিত হয়, সেই মনস্বী কাজী আবদুল ওদুদের কথা আলোচনা করেছেন মইনুল হাসান৷ মীরাতুন নাহার আলোচনা করেছেন বর্তমান অর্থনৈতিক পরিস্থিতি ও গান্ধিজির ভাবনা নিয়ে৷ ভুপেন হাজারিকার বাংলা গান নিয়ে শেখ মকবুল ইসলামের আলোচনা, স্থাপত্য-ভাস্কর্য বিভাগে শান্তনু প্রধানের নিবন্ধ, রোকেয়া সাখাওয়াত হোসেনকে নিয়ে জহির-উল -ইসলামের লেখা নজর কাড়ে৷ প্রতিটি প্রবন্ধই এক একটি বিষয়ের উপর ভিন্ন মাত্রার আলোচনায় সমৃদ্ধ৷ বাঙালির মিশ্র সংস্কৃতি ও আত্মঘাতী বাঙালিদের নিয়ে জয়ন্ত ঘোষাল ও সুমন ভট্টাচার্যের আত্মসমালোচনামূলক লেখা উল্লেখের দাবি রাখে৷ আমিনুল ইসলাম, তৈমুর খানও স্বমহিমায় উজ্জ্বল৷ তবে উদার আকাশের প্রবন্ধচর্চায় ইতিহাসমুখীতা বেশি৷ আধুনিক ও আন্তর্জাতিক বিভিন্ন মতবাদ, বিতর্ক এতে উঠে আসেনি৷ ইতিহাসের বিশ্লেষণ পছন্দ করেন এমন পাঠক অবশ্যই আছেন৷ তবে যুক্তিপূর্ণ দার্শনিক আলোচনা, ধর্মীয় বিষয়, বিজ্ঞানের উপর তথ্যপূর্ণ আলোচনার পাঠকও কম নয়৷ সেদিকটা বাংলা সাময়িকীর সম্পাদকদের খেয়াল রাখা উচিত৷ বিশেষ করে, ধর্মের যুক্তিপূর্ণ আলোচনা ও জনপ্রিয় বিজ্ঞান নিয়ে নিবন্ধ নয়া প্রজন্ম পত্রিকার পাতায় দেখতে চায়৷

প্রবন্ধিক জাহিরুল হাসান বাংলার বৌদ্ধিক জগতে একটি পরিচিত নাম৷ সবসময় ভিন্ন আঙ্গিক নিয়ে তিনি আলোচনার সূত্রপাত করেন৷ দীর্ঘদিন ‘সাহিত্যের ইয়ারবুক’ প্রকাশ করেছেন৷ সম্পাদনা করেন ‘ইয়ারবুক বার্তা’ নামে একটি মননশীল সাময়িকপত্র৷ তাঁর সাক্ষাৎকার রয়েছে উদার আকাশের এই সংখ্যায়৷ গবেষণামূলক কাজ করতে গিয়ে নানা প্রতিবন্ধকতা, তার পদ্ধতি ইত্যাদি জার্নি উঠে এসেছে এই দীর্ঘ সাক্ষাতকারে৷

সাহিত্যের আকাশে গল্প সাধারণত বেশি পাঠকপ্রিয়তা পেয়ে থাকে৷ বর্তমানে ভালো গল্প লেখা হচ্ছে না বলে অনেকেই অভিযোগ করেন৷ এটা ঠিক যে, জীবনবোধের গভীরতা ও দৈনন্দিনতার সঙ্গে পরিচয়-পর্যবেক্ষণ না-থাকায় ‘সাহিত্যের গল্প’ লিখে উঠতে পারেন না অনেকে৷ উদার আকাশে প্রকাশিত দুয়েকটা গল্পের ক্ষেত্রে এমন অভাববোধ দেখা গেছে৷ অবশ্য মঈন শেখের ‘ফসল’ গল্পটি সহ বেশ কয়েকটি সুখপাঠ্য গল্পও রয়েছে৷ তবে কবিতার ক্ষেত্রে সেই অভাব পূরণ করার চেষ্টা হয়েছে৷ শুধুমাত্র ভালো কিছু কবিতা পড়ার তাগিদেই সাহিত্যের পাঠকের জন্য উদার আকাশ সংগ্রহযোগ্য হয়ে উঠতে পারে৷ সুবোধ সরকার, জহর সেনমজুমদার, নাসের হোসেন, সৌমিত বসু, গোলাম রসুল প্রমুখ পরিচিত কবিদের সঙ্গে নিলুফা ইয়াসমিন, শিল্পী মাহমুদা, দেবাশিস সাহার কবিতা আলাদা করে নজর কাড়ে৷ সৌজন্যে পুবের কলম, ১৩.১২.২০২০ সোমবার।

উদার আকাশ।। সম্পাদক- ফারুক আহমেদ।। ঘটকপুকুর।। ভাঙড় গোবিন্দপুর।। দক্ষিণ চব্বিশ পরগনা।। মূল্য ১৫০ টাকা।।

WhatsApp chat
error: