আগামী কাল মহাজাগতিক বিস্ময়, দিনে নামবে রাতের অন্ধকার; সূর্যগ্রহণ দেখার পদ্ধতি

প্রতিফলক, বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি ডেস্কঃ
খালি চোখে কখনোই সূর্যের দিকে তাকানো উচিত নয়। কারণ সূর্যের প্রখর আলো চোখের মারাত্মক ক্ষতি করে। বিশেষ করে যাদের সূর্যগ্রহণ দেখার শখ আছে তারা মোটেই খালি চোখে আকাশের দিকে তাকাবেন না। এতে শুধু চোখের ক্ষতি নয় সম্পূর্ণ অন্ধ হয়ে যেতেও পারে। কারণ ওই সময় সূর্য থেকে কয়েকটি মারাত্মক রশ্মি পৃথিবীতে আসে যেগুলো চোখ এবং ত্বকের পক্ষে খুবই ক্ষতিকারক।

কিন্তু যারা একান্তই সূর্যগ্রহণ দেখতে চান তাদের জন্য বিশেষ পদ্ধতি আবিষ্কৃত হয়েছে।
সূর্যগ্রহণ দেখার জন্য বিশেষ ধরনের চশমা পাওয়া যায় মার্কেটে। সেগুলো ব্যবহার করে সূর্যগ্রহণ দেখলে অনেকটা নিরাপদ হয়। ওই চশমা ভেদ করে বেশিরভাগ সূর্য রশ্মি চোখে আসতে পারে না। তবে সাধারণ সানগ্লাস ব্যবহার করলে আপনি ক্ষতির হাত থেকে বাঁচতে পারবেন না। তাই অবশ্যই বিশেষ ওই সানগ্লাস ব্যবহার করুন।

সূর্যগ্রহণ দেখার অন্য আরেকটি নিরাপদ উপায় হচ্ছে পিনহোল প্রোজেক্টর। এই প্রোজেক্টর বানাতে হলে প্রথমে একটি কাগজের মাঝে ছিদ্র করতে হবে। এরপর সেটি ধরতে হবে দ্বিতীয় কাগজটির উপরে। মূলত দ্বিতীয় কাগজটিতেই সূর্য দেখবেন আপনি। প্রথমটির ছিদ্র দিয়ে গ্রহণ দেখা যাবে দ্বিতীয় কাগজটির উপরে।

সূর্য গ্রহনের সময় ছবি তোলার জন্য খালি অবস্থায় মোবাইল বা ক্যামেরা ব্যবহার করবেন না। এতে আপনার ক্যামেরা বা ফোন ক্ষতিগ্রস্ত হতে পারে। ছবি তুলতে ব্যবহার করুন সোলার ফিল্টার। এই সোলার ফিল্টার ব্যবহার করলে আপনার মোবাইল বা ক্যামেরাকে সুরক্ষিত থাকবে।

উল্লেখ্য, আগামীকাল রবিবার অর্থাৎ ২১শে জুন কর্কটসংক্রান্তি। বছরের সবচেয়ে বড় দিন। আর সেই দিনেই বিরল এক মহাজাগতিক ঘটনার সাক্ষী হতে চলেছে দেশবাসী। আগামী রবিবার ২১ জুন বছরের প্রথম সূর্যগ্রহণ হতে চলেছে। আংশিক সূর্যগ্রহণ খুব একটা আশ্চর্যের বিষয় নয়। কারন প্রতি ৪ থেকে ৭ বছর অন্তর এই গ্রহণ দেখতে পাওয়া যায়। তবে বলয় গ্রাস একটি ব্যতিক্রমী বিরল ঘটনা। যা এর পর আবারও দেখা যাবে ২০৩৪ সালে। অর্থাৎ ১৪ বছর অপেক্ষা করতে হবে ভারতবাসীকে এই ধরনের সূর্যগ্রহণ দেখার জন্য।

অন্যান্য সূর্যগ্রহণের তুলনায় সেদিনের এই সূর্যগ্রহণ বিরল ঘটনা। কারণ, সকাল ১০ টা ৪৬ মিনিট থেকে ধীরে ধীরে কমে আসবে প্রাকৃতিক আলো। ক্রমশ অন্ধকার নেমে আসবে সেদিনের দুপুরে। বেলা ১২ টা ৩৫ মিনিটে অন্ধকার আরো জোরালো হবে। সম্পূর্ণ গ্রহণ লাগবে সূর্যে। এরপর ধীরে ধীরে সূর্যের উপর থেকে সরতে শুরু করবে চাঁদের ছায়া। দুপুর ২:৩৫ এ পর চাঁদের গ্রাস থেকে সূর্য সম্পূর্ণ মুক্ত হবে।

WhatsApp chat
error: