নিজামুদ্দিন: মিথ্যা প্রচার করা মিডিয়ার বিরুদ্ধে মামলা; জি নিউজ, এবিপি, আজ তাক, ইন্ডিয়া টুডে’র বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের

মুম্বই: এক সপ্তাহ ধরে চলতে থাকা তাবলিগ জামাত ও মুসলিমদের বদনাম করে দেশে হিন্দুদের হৃদয়ে বিদ্বেষের বিষ মেশানো হচ্ছে। যার কারণে মাহমুদ নামে একজন ব্যক্তি আত্মহত্যা করেছে। দ্বিতীয়- ওই ঘটনায় দিলশাদ নামে এক ব্যক্তি তাবলীগ জামাতের সঙ্গে যুক্ত ছিল বলেই কিছু হিন্দু মৌলবাদীদের হাতে নিহত হন। এনডি টিভির প্রতিবেদন অনুযায়ী, দিলশাদ যে পরিস্থিতি চালু করছিল, তা নির্মম বলে জানানো হয়েছে।

তেলেঙ্গানা, উত্তরপ্রদেশ, মধ্যপ্রদেশের বহু গ্রামে মুসলিমরা বসবাস করছেন । মানুষও মুসলিমদের রেশন দেওয়া হয়, সরকারি কুয়ো থেকে জল নিয়ে যায় । মনে হয়, আধুনিক সময়ে মুসলিমদের সুপার-শূদ্র অস্পৃশ্যতা ঘোষণা করা হয়েছে। তেলেঙ্গানায় এমন বেশ কয়েকটি ঘটনা ঘটেছে। মুসলমানদের ভয়ের পরিবেশ সৃষ্টি হয়েছে।

এ সবই ঘটছে শুধু রাষ্ট্রদ্রোহ মিডিয়ার মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়া সন্ত্রাসের কারণে। মুসলিমদের সঙ্গে যোগসূত্র রেখে মুসলিমরা আতঙ্ক ছড়াচ্ছে। এ ব্যাপারে আমরা এই বিষয় নিয়ে ‘ অনুসন্ধান ‘ করেছি। আর এই সংক্রান্ত ঘটনায় এলাকার পুলিশ সূত্রে খবর, জি নিউজ ও টিভি সংবাদ মাধ্যমে মিথ্যে খবর পরিবেশন করেছিলেন। পরে তা টুইট ও লিঙ্ক ডিলিট করে দেয়।

জানিয়ে দিই, গুজরাত হাইকোর্টে, সরকার বলেছিল, তাবলিগ জামাতের তদন্ত শেষ হয়েছে আর একটাও আক্রান্ত পাওয়া যায়নি। তা সত্ত্বেও তাবলীগ জামাতের বিরুদ্ধে বিষোদ্গার করার খবর সংবাদমাধ্যম নিষিদ্ধ করেনি। যা দেশের একতা, অখণ্ডতা ও রক্ষার জন্য বিরাট হুমকি বলে প্রমাণিত হতে পারে ।

একই হুমকি দেখেই জি নিউজ, আজ তাক, এবিপি নিউজের বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের করেছেন মহারাষ্ট্রের পারাভাঙী জেলার অ্যাডভোকেট “সৈয়দ জুনাইদ সৈয়দ জিলানী”। আর অ্যাডভোকেট সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে বলেন, প্রত্যেক জেলা থেকে গণমাধ্যমে FIR হবে এবং তখনই মধ্যস্থতা করা মিডিয়ার মাধ্যমে বিষ ছড়িয়ে পড়া আটকানো যাবে। ভাইরাস মিডিয়া মিথ্যা খবর পরিবেশন করে, আমাদের দেশের পারস্পরিক ঐক্য ভ্রাতৃত্ববোধকে হত্যা করে, ঘৃণার বাতাবরণ তৈরি করার চেষ্টা করে যাচ্ছে।

ভারতের ঐক্যের ‘ বৈচিত্রের মধ্যে একতা’র পরিচয় চোখ দিয়ে দেখতে হয়। জামাতের বিরুদ্ধে মিথ্যা খবর চলে বলে ভাইরাস মিডিয়ার খবর খণ্ডন করতে হয়েছিল ফিরোজাবাদ পুলিশকে, যার ফলে জি নিউজ উত্তরাখণ্ড তার টুইট ডিলিট করে দেয়, যা একটি পর্দা, দ্বিতীয় স্ক্রিনে বিভ্রান্তিকর সংবাদ ‘ টুইট অপ্রাপ্য ‘ দেখা যায় ।

সূত্র- SD24 https://www.sd24th.com/2020/04/zee-news-abp.html?m=1

WhatsApp chat
error: