পৌর প্রশাসন উদাসীন, ব্যাক্তিগত উদ্যোগে ওয়ার্ডে স্যানিটাইজেশনের কাজ করলেন বামপন্থী তরুণী কাউন্সিলর

নিজস্ব সংবাদদাতা,প্রতিফলকঃ রাজ্যে ইতিমধ্যেই করোনা আক্রান্তের সংখ্যা হু হু করে বাড়ছে। মৃত্যুর সংখ্যা নিয়ে রাজ্য সরকারের অবস্থা  লেজেগোবরে। রাজ্যে করোনা টেস্টের অবস্থাও তথৈবচ! একই হাল পৌরসভা গুলোরও, পৌরকর্মীরা কখনও সঠিক সুরক্ষা বস্ত্র পাচ্ছেন না, সাধারণ মানুষ পরিষেবা পাচ্ছে না!

এই অবস্থায় কামারহাটি পৌরসভার সব ওয়ার্ড চেয়েও যখন স্যানিটাইজেশনের সুযোগ পাচ্ছে না- পৌরপ্রশাসন উদাসীন, তখনই এসএফআই নেত্রী ও কামারহাটি পৌরসভার ৩৩নং ওয়ার্ডের পৌরপ্রতিনিধি ঋতুপর্ণা মিত্রের ব্যক্তিগত উদ্যোগে এলাকার মানুষকে নিয়েই চলছে ওয়ার্ড অঞ্চল স্যানিটাইজেশনের কাজ। এর অাগে বামপন্থী এই তরুনী কাউন্সিলর নিজের ওয়ার্ডের মানুষের জন্য প্রথম হেল্পলাইন খুলেছিলেন। সাহায্য সহ পৌঁছেছেন বাড়ি বাড়ি, মহিলাদের হাতে পৌঁছে দিয়েছেন স্যানিটারি ন্যাপকিন। এক অসুস্থ রোগীর জন্য রাজারহাটে ছুটে গিয়ে নিজে রক্ত দিয়েছেন এই লকডাউন পিরিয়ডে। ঋতুপর্না মিত্র কামারহাটি পৌরসভার ৩৩ নম্বর ওয়ার্ডের সিপিআইএমের প্রতীকে নির্বাচিত কাউন্সিলর একই সাথে বামপন্থী ছাত্র সংগঠন এস এফ আই এর কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্যা।

আজকের স্যানিটাইজেশনের কাজ দেখে ওয়ার্ডের মানুষ জনপ্রিয় এই ছাত্রনেত্রীকে কুর্নিশ জানিয়েছেন। একই সাথে ওয়ার্ডের মানুষ পৌর প্রশাসনের বিরুদ্ধে ক্ষোভ উগরে দিয়েছেন। যে কাজ পৌর প্রশাসনের করার কথা ছিলো সীমিত ক্ষমতা অথচ এই বিরাট কর্মযজ্ঞ সংগঠিত করলেন এই তরুনী বামপন্থী কাউন্সিলর নিজ উদ্যোগে। পৌরপ্রতিনিধির এই উদ্যোগে সাধারণ মানুষের অংশগ্রহণ চোখে পরার মত ও এই জন্য তারা সকলেই তাকে ধন্যবাদ জানিয়েছেন।

WhatsApp chat
error: