কৃষক আন্দোলনের সমর্থনে কল্যাণী বিশ্ববিদ্যালয় টি‌এম‌সি‌পি ইউনিট

নিজস্ব প্রতিবেদক, কল্যাণী:
বিশ্বের অন্যতম সর্ববৃহৎ কৃষক আন্দোলন সাক্ষী দিল্লি। তার‌ই আঁচ এসে পড়ল এই বাংলায়। রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় আগেই কৃষক আন্দোলনকে সমর্থন জানিয়েছেন। সে কারণেই নেত্রীর কর্মসূচি পালনে সঙ্গ দিল কল্যাণী বিশ্ববিদ্যালয় টি‌এম‌সি‌পি ইউনিট। বুধবার কেন্দ্রীয় সরকারের কৃষিনীতি বিরোধী কৃষক আন্দোলনের সমর্থনে কল্যাণী বিশ্ববিদ্যালয় তৃণমূল ছাত্র পরিষদ ইউনিট বিশ্ববিদ্যালয় প্রবেশদ্বারে জমায়েত হয়। কৃষি বিলের বিরোধিতা করে এবং কৃষক আন্দোলনের সমর্থনে কল্যাণী বিশ্ববিদ্যালয়ের অনেক গবেষক-ছাত্র-ছাত্রীই জমায়েত হয়েছিলেন।

বিশিষ্টদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন বিশ্ববিদ্যালয় টি‌এম‌সি‌পি ইউনিটের প্রাক্তন সভাপতি তথা নদীয়া জেলা তৃণমূল ছাত্র পরিষদের সহ সভাপতি তুহিন ঘোষ। তিনি জানান, কেন্দ্রীয় সরকারের দ্বিচারিতা অসহনীয়। একদিকে যাঁরা আমাদের অন্ন দিয়ে বাঁচিয়ে রেখেছে তাদের শোষন করে সেই সম্পদের বেশিরভাগটাই আদানী-আম্বানীদের তুলে দিয়ে কৃষকদের বঞ্চিত করছে বিজেপি সরকার। এমনটা চলতে পারে না। কল্যাণী বিশ্ববিদ্যালয় টি‌এম‌সি‌পি ইউনিট কৃষকদের আন্দোলনকে সমর্থন করছে।

তৃণমূল কংগ্রেসের সক্রিয় সদস্য ও কল্যাণী বিশ্ববিদ্যালয়ের গবেষক ফারুক আহমেদ বলেন, কেন্দ্র সরকার কৃষক বিরোধী কৃষি
বিল অতি শীঘ্রই বাতিল করার কথা বলেন কৃষকদের কল্যাণে।

WhatsApp chat
error: