২৮ বছর পর আগামী কাল বুধবার ‘বাবরি মসজিদ ভাঙা’ মামলার রায় দেবে কোর্ট

প্রতিফলক নিউজ ডেস্ক :সালটা ১৯৯২।৬ই ডিসেম্বর । মৌলবাদী করসেবকদের হামলায় ভেঙে পড়ে ভারতের ৬০০ বছরের প্রাচীন ঐতিহ্যবাহী বাবরি মসজিদ। সুদীর্ঘ ২৮ বছর মামলা চলার পর আগামীকাল বুধবার রায় দেবে লখনউয়ের সিবিআই কোর্ট। খুব ধীরগতিতে এই মামলার কার্যক্রম চলে। ২০১৭ সালের ১৯শে এপ্রিল সুপ্রিম কোর্ট একটি নির্দেশে বলে, প্রতিদিন এই মামলার শুনানি করতে হবে এবং শুনানি চলাকালে বিচারক বদলি করা যাবে না।

বাবরি মসজিদ ভাঙ্গা মামলায় মোট অভিযুক্ত ৩২ জন। এর মধ্যে অন্যতম উত্তরপ্রদেশে প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী কল্যাণ সিং, প্রাক্তন উপপ্রধানমন্ত্রী লালকৃষ্ণ আডবাণী, বিজেপি নেতা বিনয়কাঠীয়ার, সাক্ষী মহারাজ, মুরলী মনোহর যোশী, উমা ভারতী প্রমুখ।বাবরি মসজিদ ভেঙে ফেলার পর পুলিশ দুটি এফআইআর দায়ের করে। প্রথমটি করসেবকদের বিরুদ্ধে এবং দ্বিতীয় টি ৮ জন হিন্দুত্ববাদী নেতার বিরুদ্ধে।যার মধ্যে তিনজন মারা গেছেন। করসেবকদের বিরুদ্ধে মামলার তদন্ত করে সিবিআই এবং বিজেপি ও ভিএইচপি নেতাদের বিরুদ্ধে তদন্ত ভার দেওয়া হয় উত্তর প্রদেশ সিআইডির উপর।

লখনউয়ের ওল্ড কোর্ট হাউস বিল্ডিং এর ১৮ নম্বর রুমে এই মামলার বিচার কার্যক্রম চলে। কয়েক হাজার মানুষ এই এই ঘটনার প্রত্যক্ষদর্শী হিসেবে মৌখিক সাক্ষ্য দিয়েছে। সাংবাদিক এবং পুলিশকর্মী মিলিয়ে মোট ১০২৬ জনের সাক্ষীর তালিকা প্রস্তুত করে সিবিআই।বাবরি মসজিদ ধ্বংসের পর সারাদেশে সাম্প্রদায়িক দাঙ্গা ছড়িয়ে পড়ে। যাতে মৃত্যু হয় প্রায় আঠারোশো মানুষের।

প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, ‘বাবরি মসজিদ ভাঙা মামলা’ এবং ‘বাবরি মসজিদ-রাম জন্মভূমি জমি মামলা’ দুটি সম্পূর্ণ পৃথক। ২০১৯ সালের ৯ ই নভেম্বর বাবরি মসজিদ-রাম জন্মভূমি জমি মামলার চূড়ান্ত রায় দেয় ভারতের সর্বোচ্চ আদালত। বাবরি মসজিদ ভেঙে অভিযুক্তরা গুরুতর অন্যায় করেছে বলেও উল্লেখ করা হয় সেই রায়ে।

WhatsApp chat
error: